1. admin@gonoray24.com : admin :
হিজরাদের উৎপাতে অতিষ্ঠ নগরবাসী « গণরায়
রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ১০:৫৯ অপরাহ্ন
সর্বশেষ
৩৬ লাখ ২৫ হাজার দরিদ্র পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেবে সরকার -কাদের বাংলাদেশে প্রতি ১৫ মিনিটে ১ জনের মৃত্যু হচ্ছে করোনা আক্রন্ত হয়ে করোনার ইতিহাসে এখন পর্যন্ত ভারতে সর্বোচ্চ শনাক্ত মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ-ডিবি দক্ষিণ কোরিয়ার ভিসা পাবেনা বাংলাদেশীরা রাজশাহীতে ড্রামের ভেতর থেকে অজ্ঞাত নারীর লাশ উদ্ধার এদেশের গণতন্ত্রকে হত্যা এবং দুর্নীতিকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছিলো বিএনপি -কাদের করোনা আক্রান্ত খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে লাইফ সাপোর্টে কবরী সারোয়ার ফুডপান্ডা রাইডারকে পিটিয়ে ভাইরাল সাভার বণপুকুর এলাকার স্থানীয় এক ব্যাক্তি

হিজরাদের উৎপাতে অতিষ্ঠ নগরবাসী

অনলাইন নিউজ ডেক্স :
  • প্রকাশিত : শনিবার, ৬ মার্চ, ২০২১
  • ১৭৩৭ বার পড়া হয়েছে

রাজধানীসহ সারাদেশে হিজড়াদের উৎপাত নতুন কিছু নয়। মানুষের বাড়িতে গিয়ে গেটে ধাক্কা, দোকান থেকে চাঁদা তোলা যেন এখন ওপেন সিক্রেট। তবে সম্প্রতি বিয়ের গাড়ি থামিয়ে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি দেখিয়ে চাঁদা তুলছে তৃতীয় লিঙ্গের এ সম্প্রদায়।

শুক্রবার রাজধানীর টেকনিক্যাল মোড়ে দুপুর আড়াইটার দিকে দেখা যায় এমন দৃশ্য, হিজরারা রাস্তায় বিয়ের গাড়িগুলো দেখলেই পথ রোধ করে দাঁড়ায়। এরপর গাড়ির সামনে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করে ৫ হাজার টাকা দাবি করে। টাকা না দেয়া পর্যন্ত গাড়িকে আটকে রাখে।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী মো. হেকমত উল্লাহ বলেন, যশোর থেকে ছেলে বিয়ের যাত্রী নিয়ে ঢাকায় এসেছি। মিরপুর ১১ নম্বরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ে। আজই ছেলের বিয়ে সম্পন্ন করে রাতে আবার যশোর ফিরতে হবে। পথিমধ্যে এ ধরণের বিপত্তি খুবই বিব্রতকর। তিনি বলেন, ২ হাজার টাকা হিজড়াদের দেয়ার পর এ বিড়ম্বনা থেকে নিস্তার পাওয়া গেছে।

বিয়ের গাড়ি রোধ করে চাঁদা নেয়ার বিষয়ের অভিজ্ঞতার কথা জানান, ব্যবসায়ী হুমায়ুন। তিনি বলেন, বিয়ে মানেই একটি বড় যজ্ঞ। এরমধ্যে এ ধরণের উৎপাত অপয়া হয়ে যায়। এ যেন দিনে দুপুরে ডাকাতি।

অথচ সড়ক থেকে এভাবে টাকা তোলার বিষয়টি জানেন না দারুস সালাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, এ বিষয়টি তার জানা নেই। যদি কেউ অভিযোগ করে তখন বিষয়টি নিয়ে দেখা যাবে।

সম্প্রতি আওয়ামী লীগের এক প্রবীণ রাজনীতিবিদ হিজড়াদের উৎপাতের বিষয়টি নজরে এনে প্রশ্ন তুলেছেন। কিন্তু এরপরও এ বিষয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সুধীজনরা।

এ বিষয়ে, মিডিয়া এন্ড পাবলিক রিলেশনের এডিসি ইফতেখাইরুল ইসলাম বলেন, নির্দিষ্ট অভিযোগ থাকলে আমরা ব্যবস্থা নিবো। সবসময় আসলে পুলিশের সব জায়গায় এক্সেস থাকে না। কোথায় কী ঘটছে সব তো আর পুলিশ আগে থেকেই জানে না। অভিযোগ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে মিরপুর জোনের এডিসি মাহমুদা আফরোজ লাকি বলেন, বিষয়টি যখন ঘটেছে তখন জানালে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হতো। আমরা হিজড়াদের ডাকবো ও তাদের সঙ্গে কথা বলবো। আশাকরি সামনের দিনে এ ধরণের ঘটনা আর ঘটবে না। সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল।

https://www.facebook.com/gonoray24

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ সম্পর্কিত আরও খবর

এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনী।

Desing BY Mutasim Billa