1. admin@gonoray24.com : admin :
শ্রীমঙ্গলে বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় সবজির বাগান কর্তন করেছে « গণরায়
রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ১১:০৩ অপরাহ্ন
সর্বশেষ
৩৬ লাখ ২৫ হাজার দরিদ্র পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেবে সরকার -কাদের বাংলাদেশে প্রতি ১৫ মিনিটে ১ জনের মৃত্যু হচ্ছে করোনা আক্রন্ত হয়ে করোনার ইতিহাসে এখন পর্যন্ত ভারতে সর্বোচ্চ শনাক্ত মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ-ডিবি দক্ষিণ কোরিয়ার ভিসা পাবেনা বাংলাদেশীরা রাজশাহীতে ড্রামের ভেতর থেকে অজ্ঞাত নারীর লাশ উদ্ধার এদেশের গণতন্ত্রকে হত্যা এবং দুর্নীতিকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছিলো বিএনপি -কাদের করোনা আক্রান্ত খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে লাইফ সাপোর্টে কবরী সারোয়ার ফুডপান্ডা রাইডারকে পিটিয়ে ভাইরাল সাভার বণপুকুর এলাকার স্থানীয় এক ব্যাক্তি

শ্রীমঙ্গলে বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় সবজির বাগান কর্তন করেছে

গণরায় ডেস্ক নিউজ
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৩৩ বার পড়া হয়েছে

বিয়েতে রাজি না হওয়ায় মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে এক কিষানির প্রায় তিন হাজার সবজি গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। সবজির ভরা মৌসুমে ফলসহ গাছগুলো কেটে ফেলায় নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন আশিদ্রোন ইউনিয়নের পাড়ের টং গ্রামের কিষানি জাহেরা খাতুন। রাতের আঁধারে তার চাষ করা ৩ একর জমির গাছগুলো কেটে এবং উপড়ে ফেলা হয়েছে।

বুধবার দুপুরে সরেজমিনে উপজেলার আশিদ্রোন ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের পাড়ের টং গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, প্রায় তিন হাজার করলা, শশা, চালকুমড়া, চিচিঙ্গাসহ বিভিন্ন সবজি গাছ মাটিতে পড়ে রয়েছে। সব গাছের গোড়া কেটে এবং উপড়ে ফেলে মাটিতে রাখা হয়েছে। গাছগুলোতে ফল ও ফুল দুটোই রয়েছে। এতে নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন কৃষানি জাহেরা খাতুন।

সবজি চাষি জাহেরা খাতুন বলেন, ঋণ নিয়ে তিন একর জমিতে সবজি চাষ শুরু করেছিলাম। প্রায় তিন হাজার করলা, শশা, চালকুমড়া, চিচিঙ্গাসহ বিভিন্ন সবজি গাছ লাগিয়েছিলাম ক্ষেতে। ভরা ফলের সময়ে রাতের আঁধারে আমার ক্ষেতের ফসল কেটে ফেলল। আমি পরিবার নিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছি।

তিনি বলেন, বানিয়াচং উপজেলার গুনই গ্রামের আনোয়ার আলী, পাড়ের টংয়ের ইনচার আলী ও কাদির মিয়া মঙ্গলবার রাতে তার সবজি ক্ষেত নষ্ট করেছে। সবজি গাছগুলো কেটে ফেলায় তার প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

এ ব্যাপারে বুধবার শ্রীমঙ্গল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন তিনি। এদিকে ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বিল্লাল হোসেন ও ৭, ৮, ৯ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী সদস্য শিল্পী পাল বলেন, আনোয়ার মিয়ার স্ত্রী মারা যাওয়ায় জাহেরা খাতুনকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। জাহেরা খাতুন এই প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় আনোয়ার মিয়া ক্ষুব্ধ হয়ে একাজ করেছেন।

আনোয়ার মিয়ার সঙ্গে কথা বলতে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। তিনি পলাতক থাকায় তার সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি। তার মোবাইল ফোন বন্ধ রয়েছে।

https://www.facebook.com/gonoray24

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ সম্পর্কিত আরও খবর

এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনী।

Desing BY Mutasim Billa