1. admin@gonoray24.com : admin :
দেখতে সুন্দরী বলেই আমাকে কাষ্ট করা হয়নি -দিয়া মির্জা « গণরায়
রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ১১:৪৮ অপরাহ্ন
সর্বশেষ
৩৬ লাখ ২৫ হাজার দরিদ্র পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেবে সরকার -কাদের বাংলাদেশে প্রতি ১৫ মিনিটে ১ জনের মৃত্যু হচ্ছে করোনা আক্রন্ত হয়ে করোনার ইতিহাসে এখন পর্যন্ত ভারতে সর্বোচ্চ শনাক্ত মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ-ডিবি দক্ষিণ কোরিয়ার ভিসা পাবেনা বাংলাদেশীরা রাজশাহীতে ড্রামের ভেতর থেকে অজ্ঞাত নারীর লাশ উদ্ধার এদেশের গণতন্ত্রকে হত্যা এবং দুর্নীতিকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছিলো বিএনপি -কাদের করোনা আক্রান্ত খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে লাইফ সাপোর্টে কবরী সারোয়ার ফুডপান্ডা রাইডারকে পিটিয়ে ভাইরাল সাভার বণপুকুর এলাকার স্থানীয় এক ব্যাক্তি

দেখতে সুন্দরী বলেই আমাকে কাষ্ট করা হয়নি -দিয়া মির্জা

বিনোদন ডেস্ক :
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১৪২ বার পড়া হয়েছে

মিস এশিয়া প্যাসিফিকের খেতাব জিতে বলিউডে পা রেখেছিলেন দিয়া মির্জা। বিউটি পেজ্যান্ট জিতে খুব মসৃণভাবেই সিনেমায় ক্যারিয়ার গড়েন এই অভিনেত্রী। কিন্তু বাস্তবের চিত্রটা কিছুটা অন্যরকম। বিষয়টি দিয়া মির্জাই তুলে সামনে এনেছেন।

ক্যারিয়ার নিয়ে খোলামেলা কথা বলতে গিয়ে দিয়া মির্জা বলেন, আমার লুক অনেক সময়ই আমার পেশায় অসুবিধার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। একটি চাকরি হারিয়েছি এবং একটি চরিত্রে আমাকে কাস্ট করা হয়নি, কারণ আমি দেখতে সুন্দরী।

এটি একটি অদ্ভুত ধরনের অসুবিধা। গায়ের রঙ কালো কিংবা শ্যামবর্ণ বলে সিনে ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ না পাওয়ার কথা নতুন নয়। তবে দিয়ার ক্ষেত্রে ঘটনা উল্টো।

এই অভিনেত্রী জানান, গায়ের রঙ ফর্সা বলে তিনি অনেক সময় অসুবিধায় পড়েছেন। তিনি যে ধরনের ছবিতে কাজ করতে চেয়েছেন, তার গায়ের রঙের জন্য সেই ধরনের ছবি করতে পারেননি।

প্রসঙ্গত, ২০০১ সালে ‘রেহেনা হ্যায় তেরে দিল মে’ ছবি দিয়ে বলিউডে পা রাখেন দিয়া। অভিনেত্রী হিসেবে শতভাগ সাফল্য না পেলেও পরবর্তী সময়ে প্রযোজনা এবং বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজে নিজেকে ব্যস্ত রাখেন তিনি। তবে অভিনয়কে বিদায় জানাননি। আগামী দিনে আরও ভালো কাজ করবেন বলে আশা দিয়ার।

https://www.facebook.com/gonoray24

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ সম্পর্কিত আরও খবর

এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনী।

Desing BY Mutasim Billa