Home / অপরাধ / আশুলিয়ায় শিশুকে পায়ে শিকল ও  তালা লাগিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ

আশুলিয়ায় শিশুকে পায়ে শিকল ও  তালা লাগিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি :

সাভারের আশুলিয়ায় সাত বছরের এক শিশুকে শিকল ও পায়ে তালা লাগিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে সৎ মা ও বাবার বিরুদ্ধে। এঘটনায় এলাকাবাসী দ্রুত শিশুটিকে উদ্ধার করতে উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

শিশু নির্যাতনের অমানবিক এ ঘটনাটি ঘটেছে আশুলিয়ার শিমুলিয়া ইউনিয়নের জিরানী টেংগুরি এলাকার জনৈক রিন্টু মিয়ার শ্রমিক কলোনীতে।

এলাকাবাসী বলছে,গত কয়েক মাস ধরে নিজের ভাড়া ঘরের একটি রুমে সাত বছরের শিশু মানিককে অমানবিক ভাবে পায়ে শিকল ও তালা লাগিয়ে নির্যাতন করে আসছিলো তার সৎ মা ও বাবা। এসময় নির্যাতনের বিষয়টি কাউকে জানালে তাকে প্রাণে বাঁচতে দেওয়া হবে না, জানালে সে নির্যাতনের বিষয়টি কাউকে না জানায়নি।

এদিকে মঙ্গলবাল সকালে ওই শিশুকে পায়ে তালা ও শিকল দিয়ে বেধে নির্যাতনের ঘটনাটি প্রতিবেশীরা এলাকাবাসীকে জানালে স্থানীয়রা বিষয়টি মুঠোফোনে সাংবাদিকদের জানায়, পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশু নির্যাতনের বিষয়টি দেখতে পায় সাথানীয় সাংবাদিকগন।

এসময় নির্যাতিতা শিশুটি জানায়, আমার বাবা ও সৎ মা আমাকে সবসময় শিকল দিয়ে বেধে রাখে, আমাকে ঝুলিয়ে মাথা নিচের দিকে দিয়ে বাঁশ ও ঝাড়ু দিয়ে পিটায়। রেগে গলা চেপে ধরে। আমি কান্নাকাটি করলে লোহার শিকল দিয়ে তালা দিয়ে আমার হাত ও পা বাঁধে। তারপর সৎ মা বাবা ও বোন মিলে মারধর করে। শিশুটি আরো জানায়, কান্নাকাটি করলে তারা আমাকে হত্যার ভয় দেখায়।

এসময় নির্যাতিত শিশুটিকে বন্দিদশা থেকে উদ্ধার করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য প্রশাসনের প্রতি আহবান জানিয়েছেন শিশুটি।  শিশুটিকে শিকল দিয়ে বেধে রাখায় এলাকাবাসী তার সৎ মা ও বাবার দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবী জানিয়েছে। এবিষয়ে শিশুটির বাবাও সৎ মা ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজী হয়নি।

এবিষয়ে শিমুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজাহারুল ইসলাম সুরুজ বলেন, আমি শিশু নির্যাতনের বিষয়টি শুনে ওই বাড়িতে গিয়ে পুলিশ প্রশাসনকে খবর দিচ্ছি যাতে নির্যাতিত শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়।

নির্যাতিত শিশুটি বরিশাল জেলার মঠবাড়িয়া থানার পাতা কাটা গ্রামের হানিফ এর ছেলে। তার বাবা রাজমিস্ত্রীর  কাজ করে।

আপনার মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

%d bloggers like this: