Home / আন্তর্জাতিক / পিপিই সংকটের অভিযোগ তোলা ডাক্তারকে জোর করে মানসিক হাসপাতালে ভর্তি

পিপিই সংকটের অভিযোগ তোলা ডাক্তারকে জোর করে মানসিক হাসপাতালে ভর্তি

বাংলাদেশে কোরোনা

মোট

৪৭,১৫৩

জন
নতুন

২৫৪৫

জন
মৃত

৬৫০

জন
সুস্থ

৯,৭৮১

জন

গণরায় নিউজ ডেস্কঃ 

মাস্ক এবং পিপিই সংকটের অভিযোগ তোলা ভারতের প্রখ্যাত চিকিৎসক ডা. সুধাকর রাওকে জোর করে মানসিক হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় দেশটিতে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়েছে। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০ বছরের অভিজ্ঞ এই ভারতীয় অ্যানেসথেটিস্ট দুই মাসের ভেতরে দুইবার আলোচনায় আসলেন। এর আগে তাকে বরখাস্ত করা হয়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, ভারতের বিশাখাপত্তমের একটি রাস্তায় নিজের গাড়িতে খালি গায়ে বসে আছেন সুধাকর। অন্য একটি ভিডিওতে দেখা যায়, এই চিকৎসক রাস্তার ওপর পড়ে আছেন। তার পেছন দিক থেকে হাত বাঁধা রয়েছে। এ সময় পুলিশের এক কনস্টেবল ডা. সুধাকরকে লাঠি দিয়ে পেটান। পুলিশ বলছে, চিকিৎসককে পেটানো ওই কনস্টেবলকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় তদন্ত চলছে। অপর একটি ভিডিওতে দেখা যায়, নির্বাক দাঁড়িয়ে থাকা পথচারীদের সামনে ওই চিকৎসককে বেঁধে একটি অটোরিকশাতে তুলে নিয়ে যাচ্ছেন পুলিশ সদস্যরা।

এ সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, হাসপাতালে যাওয়ার পথে গাড়ি থামিয়ে দেন পুলিশ সদস্যরা। পরে তাকে গাড়ি থেকে জোরপূর্বক বের করে আনা হয়। তারা তার মানিব্যাগ এবং ফোন ছিনিয়ে নেয়। পরে তাকে মারধর করে। পুলিশের অভিযোগ, রাস্তায় দেয়া একটি ব্যারিকেড সরিয়ে ফেলার চেষ্টা করছিলেন সুধাকর এবং রাস্তার ওপর মদের বোতল ফেলে রেখেছিলেন। পুলিশ বলেন, ‘দৃশ্যত তাকে মনে হয়েছে মানসিক সমস্যায় ভুগছেন। তাই তাকে প্রথমে একটি পুলিশ স্টেশনে নেয়া হয়। পরে একটি হাসপাতালে প্রাথমিক পরীক্ষা করানো হয়। সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে মানসিক কোনো হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেন।’

আপনার মতামত লিখুন

আপনার ‘ই-মেইল’ ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না, কিন্তু স্টার চিহিৃত ঘরগুলো পূরণ করতেই হবেতেই হবে *

*