Home / অপরাধ / কোরআন সাক্ষী রেখে ভাবীর সাথে পরকীয়া, বড়ভাইকে হ’ত্যা

কোরআন সাক্ষী রেখে ভাবীর সাথে পরকীয়া, বড়ভাইকে হ’ত্যা

বাংলাদেশে কোরোনা

মোট

৪৭,১৫৩

জন
নতুন

২৫৪৫

জন
মৃত

৬৫০

জন
সুস্থ

৯,৭৮১

জন

গণরায় নিউজ ডেস্কঃ

বড়ভাই জীবিত থাকা অবস্থায়ই কোরআন শরীফ সাক্ষী রেখে নিজের ভাবিকে গোপনে বিয়ে করে ছোটভাই বদরুল। এভাবে কেটে যায় দুই বছর, চলতে থাকে পরকীয়া। এক পর্যায়ে বড়ভাই মেরাজ মিয়া বিষয়টি জানতে পারলে তাকে পথ থেকে সরিয়ে দেয় বদরুল। ঘটনাটি ঘটেছে মৌলভীবাজারের সদর ইউনিয়নের আনিকেলী গ্রামে। নি’হত মেরাজের এক ছেলে (৫) এবং এক মেয়ে (৮) রয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) আনিকেলীবড় গ্রামের মেরাজ মিয়া নিজ ঘরে ইফতার শেষে বের হয়ে আর ফিরে আসেন নি। এরপর এলাকাবাসী শুক্রবার (১ মে) বিকেল ৪টার দিকে খালের মধ্যে মেরাজের মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে জানান। পরে মৌলভীবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে ম’রদেহ উদ্ধার করে। এরপর প্রাথমিক অবস্থায় পুলিশ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে নি’হত মেরাজের ছোট ভাই বদরুল মিয়াকে সন্দেহ করে এবং জানতে পারে তিন দিন আগে নিহতের স্ত্রী ছেলে-মেয়ে নিয়ে বাবার বাড়ি চলে গেছেন।

মৌলভীবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. জিয়াউর রহমান বলেন, কৌশলী জিজ্ঞাসাবাদের কারণে এক সময় সে ঘটনা স্বীকার করে এবং আমরা জানতে পারি সে হ’ত্যা করেছে। ভাবির সঙ্গে বদরুলের দীর্ঘদিনের পরকীয়া ছিল। তারা কোরআন সাক্ষী রেখে নিজেরা নিজেরা বিয়েও করেছে প্রায় দুই বছর আগে। কয়েক দিন আগে পরকীয়ার বিষয়টি বড় ভাই জানতে পারলে স্ত্রীর সঙ্গে প্রচুর ঝগড়া হয়। তিনদিন আগে তার স্ত্রী ছেলে-মেয়ে নিয়ে বাবার বাড়ি চলে যান। এতে বদরুল মনে মনে ক্ষুব্ধ হয় এবং বড় ভাইকে হ’ত্যার পরিকল্পনা করে।

আপনার মতামত লিখুন

আপনার ‘ই-মেইল’ ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না, কিন্তু স্টার চিহিৃত ঘরগুলো পূরণ করতেই হবেতেই হবে *

*