Home / অপরাধ / সাভারে অস্ত্র, ইয়াবাসহ সন্ত্রাসী গ্রেপ্তার

সাভারে অস্ত্র, ইয়াবাসহ সন্ত্রাসী গ্রেপ্তার

অনলাইন নিউজ ডেস্ক

সাভারের আশুলিয়ায় তৈরী পোশাক কারখানার শ্রমিক রাসেল হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত বিদেশি পিস্তলসহ ঐ মামলার প্রধান আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা জেলা উত্তর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। পিস্তল ছাড়াও এসময় তার কাছ থেকে একটি ডিজিটাল লকারে রক্ষিত অবস্থায় ৫৫০ গ্রাম বোমা তৈরীর গান পাউডার, একটি পিস্তলের ম্যাগজিন, ৪ রাউন্ড পিস্তলের গুলি ও ২ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত সন্ত্রাসীর নাম ফিরোজ আলম ওরফে বাপ্পী (২৮)। সে সাতক্ষীরা জেলার দেবহাটা থানাধীন পারুলিয়া গ্রামের রমজান আলী মোল্লার ছেলে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃত সন্ত্রাসী পোশাক শ্রমিক রাসেল খানকে হত্যার কথা স্বীকার করা ছাড়াও তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগে বিভিন্ন থানায় ৭-৮ টি মামলা রয়েছে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, পোশাক শ্রমিক রাসেল হত্যা মামলার প্রধান আসামী আশুলিয়ার ভাদাইল এলাকায় অবস্থান করছে, এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রবিবার (১০ই মার্চ) রাতে জেলা উত্তর গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবুল বাসারের নেতৃত্বে গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) তানভীর মোর্শেদ, ইলিয়াস হোসেনসহ পুলিশের চৌকশ একটি দল সেখানে অভিযান চালিয়ে একাধীক মামলার আসামী ফিরোজ আলম ওরফে বাপ্পীকে আটক করে। এসময় তার কাছে থাকা একটি ডিজিটাল লকারে রক্ষিত অবস্থায় ১টি বিদেশি পিস্তল, ১টি ম্যাগজিন, ৪ রাউন্ড গুলি, ৫৫০ গ্রাম বোমা তৈরীর গান পাউডার ও ২ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

এবিষয়ে ঢাকা জেলা উত্তর গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবুল বাসার (পিপিএম) জানান, বেশ কিছুদিন যাবত এই সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছিলো। সর্বশেষ গতকাল রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত এই সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে অস্ত্র, বিষ্ফোরক ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে পৃথক ৩টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১৫ই ফেব্রুয়ারী গভীর রাতে আশুলিয়ার শিমুলতলার জমিদারবাড়ি এলাকায় সন্ত্রসীদের গুলিতে নিহত হন পোশাক শ্রমিক রাসেল খান। ঐ ঘটনায় ১৭ই ফেব্রুয়ারী আশুলিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে নিহতের পরিবার।



আপনার মতামত লিখুন

আপনার ‘ই-মেইল’ ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না, কিন্তু স্টার চিহিৃত ঘরগুলো পূরণ করতেই হবেতেই হবে *

*